সদ্য সমাপ্ত বিশ্বকাপে ভাল করতে না পারার কারণে চাপে থাকা সত্ত্বেও আসন্ন শ্রীলংকা সফরে বাংলাদেশের হয়ে নেতৃত্বের দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে চান ওপেনার তামিম ইকবাল।

নিয়মিত অধিনায়ক মাশরাফি বিন মোর্তাজা নতুন করে হ্যামস্ট্রিং ইনজুরিতে পড়ায় দলের অধিনায়কত্বের দায়িত্ব পড়েছে এই ওপেনারের ওপর। মাশরাফিকে অন্তত এক মাস মাঠের বাইরে কাটাতে হবে। বিশ্বকাপেও ইনজুরি নিয়ে দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন তিনি।

বাংলাদেশ দলের সহ-অধিনায়ক সাকিব আল হাসানও এই সিরিজে থাকছেন না। তার ছুটি অনুমোদন করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। যে কারণে সিনিয়র খেলোয়াড় হিসেবে শ্রীলংকাগামী বাংলাদেশ দলের নেতৃত্বে দেয়ার জন্য অগ্রভাগে ছিলেন তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিম। মুশফিকুর রহিম নতুন করে দলের নেতৃত্ব নিতে অনিচ্ছা প্রকাশ করলে দায়িত্বটিকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে গ্রহণ করেছেন তামিম ইকবাল।

শনিবার দল নিয়ে কলম্বোর উদ্দেশ্যে যাত্রা করার আগে হয়রত শাহজালাল (রহ:) আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে তামিম সাংবাদিকদের বলেন, ‘বিশ্বকাপে আমি আমার স্বাভাবিক খেলাটা খেলতে পারিনি। তবে সামনে নতুন চ্যালেঞ্জ অপেক্ষা করছে। আশা করি ভাল কিছু ঘটবে। দেখা যাক কি হয়।

বিশ্বকাপের ৮ ম্যাচে অংশ নিয়ে ২৯.৬৭ গড়ে মাত্র ২৩৫ রান সংগ্রহ করেছেন তামিম ইকবাল। যেখানে হাফ-সেঞ্চুরি ছিল মাত্র একটি। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সর্বোচ্চ ৬২ রানের ইনিংস খেলেছেন তিনি।

২০১৫ বিশ্বকাপে দুর্দান্ত পারফর্মেন্স করা তামিম ইকবালকে নিয়ে এবারের আসরেও যথেষ্ট উচ্চাশা ছিল টাইগার শিবিরে। বিশ্বকাপে ভাল করার পরিকল্পনা নিয়ে তিনি কঠোর পরিশ্রমও করেছিলেন। কিন্তু সবই বৃথা গেছে। একটি বারের জন্যও সাবলিল ব্যাটিং করতে পারেননি তামিম। সবাই ব্যস্ত হয়ে উঠেছিল এর কারণ খুঁজতে।

তবে এখন ঘুরে দাঁড়াতে চান তিনি। বলেছেন বিশ্বকাপে ব্যর্থতার ক্ষত মুছতে শ্রীলংকা সফরটি হচ্ছে তার জন্য সঠিক মঞ্চ। তামিম বলেন, ‘আমি যদি শুধুমাত্র বিশ্বকাপের ওই ব্যর্থতার কথা ভাবতে থাকি তাহলে ভাল ফল করতে পারব না। আমি ইতিবাচক মনোভাব নিয়ে সামনের দিকে তাকাতে চাই। আমি ইতিবাচক কিছু খুঁজে পেতে চাই।

তবে এবারের লংকা সফরে অনুপস্থিত দলের সেরা তারকারা। নিয়মিত অনেক খেলোয়াড়ও সেখানে খেলছে না। সফরে বাংলাদেশ দল ফেভারিট কিনা সেটি নিয়েও সন্দেহ রয়েছে। কারণ শ্রীলংকার মাটিতে এখনো পর্যন্ত কোন দ্বিপাক্ষিক সিরিজ জয় করতে পারেনি টাইগাররা।

যে কারণে ব্যক্তিগত দূর্বলতা কাটানো ছাড়াও নেতৃত্ব দিয়ে দলকে এগিয়ে নেয়াটা তামিমের জন্য চ্যালেঞ্জিং। টাইগার ওপেনার বলেন, ‘এই সিরিজটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলেই আমি মনে করি। যে দল নিয়ে আমরা শ্রীলংকা যাচ্ছি তাদের অনেক কিছু প্রমাণ করার আছে। দলের বেশ কয়েকজন সেরা খেলোয়াড়ের সেবা আমরা পাচ্ছি না। যে কারণে এই সিরিজটি আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জিং হবে। তা ছাড়া নিজেদের মাটিতে শ্রীলংকা যথেষ্ট শক্তিশালী দল।

অবশ্য এবার তামিমকে আত্মবিশ্বাস যোগাচ্ছে সর্বশেষ লংকা সফরটি। নিজেদের মাটিতে শ্রীলংকাকে হারিয়ে নিদাহাস টি-২০ ট্রফি জিতে নিয়েছিল টাইগাররা। তামিম বলেন, ‘সাম্প্রতিক সময়ে শ্রীলংকায় আমরা ভাল খেলছি। তাই এই মুহূর্তে সেখানে ভাল না করার কোন কারণ দেখছি না।

উল্লেখ্য, গত এপ্রিল মাসের শেষ সপ্তাহে ইস্টার সানডের আগে শ্রীলংকায় সন্ত্রাসী হামলায় আড়াইশরও বেশি লোক প্রাণ হারানোর পর প্রথম কোন বিদেশী দল হিসেবে লংকা সফরে যাচ্ছে বাংলাদেশ। (বাসস)