কেরানীগঞ্জে ভ্যাকসিন কার্যক্রমের উদ্বোধন শেষে মহামারি করোনাভাইরাসের টিকা নিলেন সাবেক খাদ্যমন্ত্রী, ঢাকা-২ আসনের সংসদ সদস্য ও আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম।

রোববার (৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে কেরানীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনা ভ্যাকসিন কার্যক্রমের উদ্বোধন করে ভ্যাকসিন নেন তিনি। পরে স্বাস্থ্য কর্মকর্তা, পুলিশ ও সাংবাদিকসহ সাধারণ মানুষকে এই ভ্যাকসিন দেওয়া হয়। প্রথম দিনে ৫২ জনকে এই ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। পর্যায়ক্রমে এর পরিমাণ বাড়বে। 

No description available.

টিকা গ্রহন শেষে কামরুল ইসলাম বলেন, ভ্যাকসিন নেওয়ার পর স্বাভাবিক আছি। করোনা ভ্যাকসিন নিয়ে যারা মিথ্যাচার করেছে। জনগণ তাদেরকে প্রত্যাখ্যান করেছে। এই করোনা টিকা সবচেয়ে নিরাপদ। এ সময় তিনি কেরানীগঞ্জের সকলকে ভ্যাকসিন গ্রহনের আহ্বান জানান। 

এর আগে, সকাল ১০টায় স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে গণহারে করোনাভাইরাসের টিকাদান কর্মসূচির উদ্বোধন করেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

টিকাদান কর্মসূচির উদ্বোধন করে তিনি বলেন, সারা বছর ভ্যাকসিন কার্যক্রম চলবে। এই ভ্যাকসিন সবচেয়ে নিরাপদ বলেও উল্লেখ করেন তিনি। 

মন্ত্রী আরও জানান, ভ্যাকসিন নিয়ে কোনো সমালোচনা নয়, প্রথমে মন্ত্রী ও ভিআইপিদের নেওয়ার মাধ্যমে আস্থা বাড়বে। ভ্যাকসিন কার্যক্রম দিনের বিভিন্ন সময়ে রাজধানীর বিভিন্ন হাসপাতালে প্রধান বিচারপতি, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব ও মন্ত্রিপরিষদ সচিব টিকা নেবেন।