বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্যাটকো দুর্নীতি মামলার চার্জ গঠনের বিষয়ে শুনানির তারিখ পিছিয়ে আগামী ২৫ সেপ্টেম্বর ধার্য করেছেন আদালত।

কেরানীগঞ্জ কেন্দ্রীয় কারাগারে নবনির্মিত ২ নম্বর ভবনে স্থাপিত ঢাকার অস্থায়ী বিশেষ জজ আদালত-৩ আজ বৃহস্পতিবার আসামিপক্ষের সময় আবেদন মঞ্জুর করে এ তারিখ ঠিক করেন।

খালেদা জিয়ার আইনজীবী জিয়াউদ্দিন জিয়া জানান, খালেদা জিয়ার এখনো অসুস্থ। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কারা কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছে তার চিকিৎসা চলমান। এই অবস্থায় তাকে হাসপাতাল থেকে জেলখানায় পাঠনো সম্ভব হল না বলে আদালতে হাজিরা পরোয়ানা পাঠানো হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে আদালত আগামী ২৫ সেপ্টেম্বর মামলার পরবর্তী শুনানির তারিখ ধার্য করেন।

এর আগে গত ১৮ জুন অসুস্থ খালেদা জিয়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যালে চিকিৎসাধীন থাকায় তাকে আদালতে আনেনি কারা কর্তৃপক্ষ। ওই দিন উভয় পক্ষের শুনানি গ্রহণ করে আদালত ১৫ জুলাই শুনানির তারিখ ধার্য করেছিলেন। তার পর ২২ আগস্ট তারিখ ধার্য করা হয়।

২০০৭ সালের ২ সেপ্টেম্বর দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) উপপরিচালক গোলাম শাহরিয়ার চৌধুরী চারদলীয় জোট সরকারের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া, তার ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোসহ ১৩ জনের বিরুদ্ধে তেজগাঁও থানায় এ মামলা করেন। মামলার পরদিন খালেদা জিয়া ও কোকোকে গ্রেফতার করা হয়।

মামলার অভিযোগপত্রে বলা হয়, আসামিরা পরস্পর যোগসাজশে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান গ্যাটকোকে ঢাকার কমলাপুর আইসিডি ও চট্টগ্রাম বন্দরের কনটেইনার হ্যান্ডলিংয়ের কাজ পাইয়ে দিয়ে রাষ্ট্রের ১৪ কোটি ৫৬ লাখ ৩৭ হাজার ৬১৬ টাকার ক্ষতি করেন।

মামলার ২৪ আসামির মধ্যে ছয়জন এরই মধ্যে মারা গেছেন। তারা হলেন- সাবেক মন্ত্রী এম সাইফুর রহমান, আব্দুল মান্নান ভূঁইয়া, এম কে আনোয়ার, জামায়াতে ইসলামীর সাবেক আমির মতিউর রহমান নিজামী, চট্টগ্রাম বন্দরের প্রধান অর্থ ও হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা আহমেদ আবুল কাশেম ও বিএনপি চেয়ারপারসনের ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকো।