ইউসুফ দিপু: আগামী ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে অথবা আগামী বছরের জানুয়ারিতে অনুষ্ঠিত হতে পারে ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন।এ নির্বাচনে প্রস্তুতি নিচ্ছে ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ।

তবে এবার দুই সিটি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীতা নির্বাচনে দলের পরিবর্তন আসতে পারে বলে ধারনা করছে দলের অভ্যন্তরীণ নেতারা।

তারা মনে করছে গত সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী বাছাইয়ের ক্ষেত্রেও আওয়ামী লীগ ব্যাপক পরিবর্তন এনেছে।এক্ষেত্রে যাদের ওপর জনগন ভরসা রাখতে পারে যাচাই বাছাই শেষে তাদেরকে মনোনয়ন দিয়ে ছিল আওয়ামী লীগ। এদিকে বর্তমানে ঢাকায় দুই সিটিতে দুই মেয়র নগরবাসীর প্রত্যাশা পূরণ করতে পারেনি এমনটাই মনে করছে অনেক নেতারা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক, ক্ষমতাসীন দলের আরেক কেন্দ্রীয় নেতা বলেন, “দুই মেয়র বিশেষত সাইদ খোকনের রেকর্ড ভাল হয়নি।ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রনেও তাদের অনেক ক্ষেত্রে ব্যর্থতা প্রকাশ পেয়েছে। এ ছাড়া বেশিরভাগ দল-সমর্থিত কাউন্সিলর তাদের দায়িত্ব যথাযথ ভাবে পালন করেননি। সুতরাং, আমি মনে করি, দলের ট্র্যাক রেকর্ড বিবেচনা করে দলের পরবর্তী প্রতিনিধিদের মনোনীত করবে।

দলের সিনিয়র নেতাদের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত হওয়ার এবং নিবেদিত ও জনপ্রিয় সেরা প্রার্থীদের বাছাই করতে তথ্য সংগ্রহ করার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন।

তারা বলছেন, আওয়ামী লীগ দলের প্রধান এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইতিমধ্যে তাঁর দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের সিটি কাউন্সিলরদের পদের জন্য দলটিও নতুন মুখের মনোনয়ন দেবে।

ফলস্বরূপ, বিদ্যমান দলীয়-মনোনীত কাউন্সিলরদের অনেকেই এবার মাঠে নামতে পারবেন না। তবে দলের আসন্ন কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠকে বিষয়টি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে। সেপ্টেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহে এই সভা অনুষ্ঠিত হবে।

আসন্ন সিটি নির্বাচনের জন্য দলের প্রস্তুতি সম্পর্কে আ.লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য লেঃ কর্নেল (অব।) মুহাম্মদ ফারুক খান বলেছেন যে তারা দলীয় প্রার্থীদের জরিপ শুরু করেছেন।

তিনি বলেনআপনারা জানেন, ডিএনসিসি, ডিএসসিসি এবং চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন সহ তিনটি সিটি কর্পোরেশন আগামী পাঁচ বা ছয় মাসের মধ্যেই অনুষ্ঠিত হবে। সে কারণেই আমরা এখন থেকেই প্রস্তুতি নিচ্ছি।

দলটি এবার ডিএনসিসি ও ডিএসসিসি মেয়র পদে নতুন মুখের প্রার্থী করবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে আ.লীগ প্রবীণ নেতা বলেছিলেন, “আমি যতদূর জানি, দুই পদস্থ মেয়র ভাল কাজ করেছেন তবে আমাদের আরও একজন যোগ্য রয়েছেন প্রার্থী এই পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা। প্রথমত, আমরা দেখব যে কোন রাজনৈতিক দলগুলি আসন্ন সিটি নির্বাচনে অংশ নেয় এবং তারপরে তিনটি সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আমরা আমাদের সেরা প্রার্থীদের নামিয়ে দেব। "

আসন্ন সিটি নির্বাচনের বিষয়ে সম্প্রতি গণমাধ্যমের সাথে আলাপকালে আলীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের দুটি নির্বাচন কয়েক মাসের মধ্যেই অনুষ্ঠিত হবে। দলটি সিটি নির্বাচন জিততে আগ্রহী ছিল।

এর আগে, সর্বশেষ দুটি সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন ২৮ শে এপ্রিল, ২০১৫ এ অনুষ্ঠিত হয়েছিল, যেখানে আ.লীগের মনোনীত প্রার্থীরা যথাক্রমে ডিএসসিসি ও ডিএনসিসির মেয়র নির্বাচিত হয়েছিলেন।মেয়র আনিসুল হক ৩০ শে নভেম্বর, ২০১৩ তারিখে মারা যান এবং তাঁর মৃত্যুর পরে ডিএনসিসির মেয়র পদ শূন্য হয়ে পড়ে। পরে, আ.লীগ মনোনীত ব্যবসায়িক আইকন আতিকুল ইসলাম, যিনি এই বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত ডিএনসিসি উপনির্বাচনে জয়ী হয়েছেন।