হলে থেকে কোন মাস্তানি চলবে না, দেশের প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও হলে তল্লাশির নির্দেশ দিয়েছেন আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আজ বুধবার বিকেল সম্প্রতি জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে যোগদান ও সদ্য শেষ হওয়া ভারত সফরে অর্জন ও সফলতা তুলে ধরতে গণভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, অপরাধীরা কোন দলে তা বিবেচনা করা হবে না। হত্যাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তি দেয়া হবে।

বুয়েটে আবরার হত্যা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, হত্যার সঙ্গে জড়িত সবাইকে ইতোমধ্যে গ্রেফতার করা হয়েছে। দোষীদের সর্বেোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করা হবে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের কোন স্বার্থ শেখ হাসিনা বিক্রি করবে এটা হতে পারে না। আসলে বিদেশ থেকে আনা আমদানিকৃত গ্যাস প্রক্রিয়াজাতকরণ করে তা ভারতে রপ্তানি করা হবে।।

এর আগে  বিশ্ব অর্থনীতি ফোরামের ভারত অর্থনৈতিক সম্মেলনে যোগদানের উদ্দেশ্যে গত ৩ থেকে ৬ অক্টোবর এই ৪ দিনের সফরে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেন শেখ হাসিনা। এ সময় দুই দেশের মধ্যে সাতটি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত এবং তিনটি যৌথ প্রকল্পের উদ্বোধন করা হয়।

প্রধানমন্ত্রী নয়াদিল্লিতে অবস্থানের সময় আঞ্চলিক শান্তি ও সমৃদ্ধি বজায় রাখার ক্ষেত্রে অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে ‘ঠাকুর শান্তি পুরস্কার ২০১৮’গ্রহণ করেন। তাকে এ পুরস্কারে ভূষিত করে কলকাতার এশিয়াটিক সোসাইটি।

এর আগে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদ (ইউএনজিএ)-এর ৭৪ তম অধিবেশনে যোগদানের উদ্দেশে তিনি ২২ থেকে ২৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্র সফর করেন।

যুক্তরাষ্ট্র সফরে এবার দুটি সম্মাননা পেয়েছেন শেখ হাসিনা। বাংলাদেশে টিকাদান কর্মসূচির সাফল্যের জন্য গ্লোবাল অ্যালায়েন্স ফর ভ্যাক্সিস অ্যান্ড ইমিউনাইজেশন (জিএভিআই) তাকে ‘ভ্যাকসিন হিরো’সম্মাননায় ভূষিত করেছে। আর তরুণদের দক্ষতা উন্নয়নে ভূমিকার স্বীকৃতি হিসেবে জাতিসংঘ শিশু তহবিল- ইউনিসেফ তাকে ভূষিত করেছে ‘চ্যাম্পিয়ন অব স্কিল ডেভেলপমেন্ট ফর ইয়ুথ’ সম্মাননায়।