জুলাই ২০২১ থেকে ৩০ জুন ২০২২ সমাপ্ত বছরের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে শেয়ারহোল্ডারদের লভ্যাংশ না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত জাহিন স্পিনিং লিমিটেড। অর্থাৎ ২০২০, ২০২১-এর পর ২০২২ সালেও শেয়ারহোল্ডারদের হতাশ করল কোম্পানি।

বুধবার (২ নভেম্বর) ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

ডিএসইর তথ্য মতে, ২০১৫ সালে তালিকাভুক্ত কোম্পানিটি সর্বশেষ ২০১৯ সালে শেয়ারহোল্ডারদের ৫ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ দিয়েছিল। তারপর থেকে আর কোনো লভ্যাংশ দেয়নি। ২০২১ সালের আর্থিক প্রতিবেদন অনুসারে কোম্পানির রিজার্ভ নেগেটিভ বা ঋণাত্নক রয়েছে ৪২ কোটি ৬৪ লাখ টাকা। এছাড়াও কোম্পানির ৩ কোটি ২ হাজার টাকার ব্যাংক ঋণও রয়েছে।

এদিকে বিনিয়োগকারীদের এবার প্রত্যাশা ছিল, সমাপ্ত বছর থেকে শেয়ারহোল্ডারদের মুনাফা দেবে কোম্পানিটি। কিন্তু শেয়ারপ্রতি ১ টাকা ২৮ পয়সা লোকসান দেখিয়ে শেয়ারহোল্ডারদের আবার হতাশ করেছে জাহিন স্পিনিং।

৩০ জুন সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি সম্পদ (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ৪ টাকা ৯৭ পয়সার। অর্থাৎ ১০ অভিহিত মূল্যের সম্পদের দাম মাত্র ৪ টাকা ৯৭ পয়সা।

এদিকে লভ্যাংশ না দেওয়ার সিদ্ধান্ত শেয়ারহোল্ডারদের সম্মতিক্রমে অনুমোদনের জন্য জাহিন স্পিনিংয়ের বার্ষিক সাধারণ সভার (এজিএম) দিন নির্ধারণ করা হয়েছে চলতি বছরের ২৬ ডিসেম্বর। এ সংক্রান্ত রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ২৪ নভেম্বর।

কোম্পানিটিতে মোট ১১ কোটি ৩৮ লাখ ২৮ হাজার ৩৬৮টি শেয়ার রয়েছে। এর মধ্যে শুধুমাত্র সাধারণ বিনিয়োগকারীদেরই শেয়ার রয়েছে ৭০ শতাংশ।